সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে জাগপা’র শ্রদ্ধা, প্রীতিকে দিবালোকে গুলি করে হত্যা করা স্বাধীনতার অর্জন নয়!

মহান স্বাধীনতা দিবসে বীর শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের লাল সালাম জানিয়ে জাগপা’র সভাপতি ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান বলেছেন, আমার বোন প্রীতিকে দিবালোকে গুলি করে হত্যা করা আমাদের স্বাধীনতার ৫০ বছরের অর্জন হতে পারে না!

আওয়ামী লীগের রাজনীতির মাসুল কেন সাধারণ মানুষকে দিতে হবে? আজ আফসোস হয় দেশের কাছে মেয়ে হত্যার বিচার চাইতে পারেননি প্রীতির পরিবার। এটাই প্রমাণিত এই জুলুমবাজ সরকারের কাছে মানুষ ও আইনের শাসন নিরাপদ নয়!

তিনি বেদনার সাথে বলেন আজ ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী। জাতীয় স্মৃতিসৌধকে ফুলে ফুলে সাজিয়ে দেওয়া এটাই রাষ্ট্রের দায়িত্ব নয়! স্বাধীনতার ৫০ বছরে দেশের জনগণ কি পেল? গত কয়েক বছর ধরে রাত পোহালে দেখা যায় দেশের মানুষের কর্ম নাই, টাকা নাই, খাদ্য নাই। স্বাধীনতার চেতনা মানেই কি জনগণের বাকস্বাধীনতা কেড়ে নেওয়া? গুম, খুন, ধর্ষণ ও দিবালোকে আমার বোন প্রীতি’কে গুলি করে হত্যা করা ? জনগণের ট্র্যাক্সের টাকা বিদেশ পাচার করা?

তিনি আরো বলেন, একটি অদৃশ্য শক্তি বেষ্টিত সরকার পরিচালিত হচ্ছে। আমরা বাংলার আকাশে আবারও অদৃশ্য শক্তির ছায়া দেখতে পাচ্ছি। প্রতিবেশী রাষ্ট্র থেকে কারা গোপনে এসে আবার গোপনে চলে যান? বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবসের কথা শুনলে কাদের শরীরে জ্বালা উঠে ? কাদের ইঙ্গিতে কারা ক্ষমতার মসনদে বসে স্বাধীনতাকে নিলামে তুলতে চায়?দেশবাসী সবই জানেন এবং বোঝেন। তবে যায় ভাবুন না কেন বাংলার মজলুম মানুষকে দাবিয়ে রাখা যাবে না। মনে রাখবেন বাংলার মানুষ কারো গোলামীর জন্য জন্মায়নি।

তিনি আজ সকাল ১১.৩০টায় আসাদ গেট জিইউপি মিলনায়তনে জাগপা আয়োজিত মহান স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও চেতনার বাংলাদেশ শীর্ষক আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

আরো বক্তব্য রাখেন জাগপা’র সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ইকবাল হোসেন, প্রেসিডিয়াম সদস্য আবু মোজাফফর মো. আনাছ, আসাদুর রহমান খান, বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ মোঃ শফিকুল ইসলাম, সহসভাপতি ও রাজনৈতিক মুখপাত্র রাশেদ প্রধান, দপ্তর সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম রাতুল, যুব জাগপা’র সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মোঃ সিরাজুল ইসলাম, জাগপা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল চন্দ্র সরকার, সহসভাপতি আল আমিন প্রমুখ।

এদিকে জাগপা’র সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ইকবাল হোসেন এর নেতৃত্বে সকাল ৯টায় জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তর্পক অর্পণ করেন জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি- জাগপা।