আগামীকাল জাগপা’র ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী!

জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি – জাগপা’র ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দলের দেশ-বিদেশে থাকা সর্বস্তরের নেতাকর্মী, শুভাকাঙ্ক্ষী, গণমাধ্যমকর্মী এবং দেশবাসীকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন জাগপা’র সভাপতি ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান এবং যে সকল নেতৃবৃন্দ মৃত্যুবরণ করেছেন তিনি সকলকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন।

দলটির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে তিনি বলেন, আজকের দিনটি আমাদের সবার জন্য আনন্দ ও প্রেরণার। ১৯৮০ সালের (৬ এপ্রিল) এই দিনে মজলুম জননেতা, আধিপত্যবাদ বিরোধী সংগ্রামের বলিষ্ঠ কন্ঠস্বর, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি – জাগপা’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মরহুম শফিউল আলম প্রধান দলটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। সে সময়ে দেশে বিরাজমান চরম জাতীয় সংকটের কারণে যে রাজনৈতিক শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছিল তা পূরণ করতে রাজনৈতিক দল হিসেবে ঢাকার রমনার সবুজ চত্বরে ১. জনগণের স্বাধীনতা ২. গণতন্ত্র ৩. ধর্মীয় স্বাধীনতা এবং ৪. অর্থনৈতিক মুক্তির লক্ষ্যে এক সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি – জাগপা’র আত্মপ্রকাশ হয়। দলটি ৮০’র দশকের শুরু থেকেই অদ্যবধি জনগণের সকল সংকটে রাজপথে, কূটনীতিক ভাবে এবং সেমিনারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। শুধু তাই নয়, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি – জাগপা দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে। বেরুবাড়ী, তিন বিঘা করিডোর, ফারাক্কা বাঁধ, সীমান্ত হত্যাসহ জাতীয় সকল সংকট মোকাবেলা করে আজ ৪২ বছর পার করছে দলটি ।

গণতান্ত্রিক ও ভোটাধিকার আন্দোলনেও জাগপা রাজপথে রক্ত দিচ্ছে । ২০১৪ সালের ৫ই জানুয়ারি যুব জাগপা নেতা শহীদ মাসুদ রায়হান পুলিশ ও বিজিবির গুলিতে শহীদ হয়েছেন। আওয়ামী লীগ সরকারের এক যুগের শাসনামলে শফিউল আলম প্রধান’সহ জাগপা, যুব জাগপা ও জাগপা ছাত্রলীগের অসংখ্য নেতাকর্মী জেল খেটেছেন। এখনো জাগপা’র নেতাকর্মীদের মামলার নিয়মিত হাজিরা দিতে হচ্ছে।

তিনি বলেন, আমি বিশ্বাস করি সকল ষড়যন্ত্রের বাঁধা পেরিয়ে জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি – জাগপা আগামীতে জনগণের অধিকার আদায়ে সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে রাজপথে অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে এবং জালীমশাহীর পতন ঘটিয়ে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করবে ইনশাআল্লাহ ।

তিনি আরো বলেন, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি – জাগপা’র ৪২ বছরে এসে বলতে হচ্ছে আজ দেশের স্বাধীনতা নিলামে উঠতে বাকি! দেশে গণতান্ত্রিক পরিবেশ নেই। মানুষের মৌলিক অধিকার গুলো কেড়ে নেওয়া হচ্ছে। বাকস্বাধীনতা নাই। আজ ধর্মীয় নেতাসহ রাজবন্দিদের মুক্তি দেওয়া হচ্ছে না। দ্রব্য মূল্যের উর্ধ্বগতির কারণে আজ মানুষের জীবন দুর্বিসহ হয়ে পড়েছে। তাই জনগণ ও দেশকে মুক্ত করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ সংগ্রাম গড়ে তোলার আহ্বান জানাচ্ছি। আজকের এই দিনে আমাদের অঙ্গিকার – “জালীমশাহীর দিন শেষ ফিরিয়ে আনবো বাংলাদেশ”।

তিনি আজ মঙ্গলবার জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি- জাগপা’র ৪২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে এসব কথা বলেন।