সোনার বাংলাকে কবরস্থান ও শ্মশান ঘাটে রুপান্তর করবেননা! কারফিউ ঘোষনা করেন – ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান

জাগপা সভাপতি ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান বলেছেন, ডিসেম্বর মাস থেকে কোভিট-১৯ তথা করোনা ভাইরাসের কথা শুনছি, সেই করোনা ভাইরাস দেশে এলো মার্চ মাসে কিন্তু আমরা তাও প্রস্তুতি গ্রহণে ব্যর্থ। অতপর ব্যপক প্রস্তুতি গ্রহণের গল্প শুনলাম, বড় বড় বুলি শুনলাম কিন্তু কাজের বেলায় শুণ্য। সরকারের সমন্বয়হীনতা ও অবহেলায় বিনোদন কেন্দ্র অরক্ষিত ছিল, বার বার গার্মেন্টস শ্রমিকরা দল বেধে ঢাকায় আসা যাওয়া করেছে, মার্কেট খোলা হয়েছে, ত্রান লুটপাট হয়েছে, অসাধু ব্যবসায়ীরা জরুরী প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি অধিক মুল্যে বিক্রয় করেছে। করোনা ভাইরাসের এই দুর্যোগময় সময়ে সরকার নুন্যতম কোন সেক্টরে সফলতা দেখাতে পারে নাই। সাধারণ ছুটি, লকডাউন, লকআপ এর খেলা অনেক হয়েছে। এখনো সময় আছে, বিলম্ব না করে সারা দেশে কারফিউ ঘোষনা করেন।

জাগপা সভাপতি আরও বলেন, আমাদের দেশের সাধারণ মানুষ সাধারন ছুটি বোঝেনা। সরকারের ভিন্ন ভিন্ন নির্দেশনায় সবাই বিভ্রান্ত। অসহায় মানুষের বাসায় খাবার দিয়ে, যে যেখানে আছে সেখানেই অবস্থান করবে তা নিশ্চিত করেন এবং কারফিউ ঘোষনা করেন।

ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান বলেন, দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থা নিয়ে আমি আর কিছু বলতে চাইনা। অসহায় মানুষের আর্তনাদ কি এখনো আপনাদের রাজপ্রাসাদে পৌঁছে নাই? এখনো সময় আছে, চোখের পর্দা সরিয়ে দেখেন আর কান পেতে শুনেন। সোনার বাংলাকে কবরস্থান ও শ্মশান ঘাটে রুপান্তর করবেননা।